ব্যাংকের আস্ত একটি ভুয়া শাখা

পুরোদস্তুর সাজানো গোছানো একটি ব্যাংকের শাখা। কম্পিউটারের সামনে বসে ব্যাংকের কর্মকর্তারা কাজ করছেন। টাকা পয়সা জমা হচ্ছে, কেউ কেউ তুলেও নিচ্ছেন।

স্থানীয় অনেকে ব্যাংকটিতে ফিক্সড ডিপোজিট আর সেভিংস অ্যকাউন্টও খুলেছেন। কিন্তু পুলিশ অভিযান চালানোর পর জানা গেল এটি আসলে ব্যাংকের একটি ভুয়া শাখা।

এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের মূলায়ম নগরে।

ভারতের নামী একটি বেসরকারি ব্যাংকের শাখা হিসাবে তারা কিছুদিন ধরেই কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, এখানে ব্যাংকের একটি ভুয়া শাখা রয়েছে, এই তথ্য পাওয়ার পর ঐ ব্যাংকের কর্মকর্তারা দিল্লি আর বারানসি থেকে এখানে আসেন। তারা পুলিশের কাছে বিস্তারিত খুলে বলার পর পুলিশ তাদেরকে নিয়ে শাখাটিতে অভিযান চালায়।

অভিযানের পর পুলিশ দেখতে পায়, শুধু যে ব্যাংকটিই ভুয়া তাই নয়, ম্যানেজার আফাক আহমেদ মিথ্যা পরিচয়ে সেটি পরিচালনা করে আসছিলেন।

তার আসল নাম আফাক আহমেদ হলেও তিনি নাম নিয়েছিলেন বিনোদ কুমার কাম্বালি। সাচিন টেন্ডুলকারের বাল্যবন্ধু সাবেক সুপরিচিত ওই ক্রিকেটারের নামেই তিনি নামটি নিয়েছিলেন। এমনকি তার আধার কার্ডও সেই মিথ্যা পরিচয়ে তৈরি করা।

প্রায় একমাস আগে তিনি এই ব্যাংকটি চালু করেন। মাসে পাঁচ হাজার টাকা বেতনে স্থানীয় কয়েকজনকে চাকরি দেয়া হয়, যদিও তারা এই জালিয়াতির বিষয়ে জানতো না বলে দাবী করা হচ্ছে।

আফাক আহমেদ বাড়ির মালিককে ভাড়া দেননি, আসবাবপত্রগুলোও আরেকজনের নামে সংগ্রহ করা হয়েছে।

ব্যাংকটি থেকে প্রায় এক লক্ষ ৩৭ হাজার রুপি আটক করেছে পুলিশ। মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে প্রতারক ম্যানেজারকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

BBC BANGLA

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *