উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার দুই নেতার ঐতিহাসিক বৈঠক

আন্তর্জাতিক খবর

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-আন যুদ্ধবিরতি রেখা অতিক্রম করে দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রবেশ করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।

১৯৫৩ সালে কোরিয়া যুদ্ধ শেষ হওয়ার ৬০ বছরেরও বেশি সময় পর এই প্রথম উত্তর কোরিয়ার কোন নেতা দক্ষিণ কোরিয়ায় সফর করলেন। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং আন শুক্রবার সকালে যখন দুই কোরিয়ার মধ্যেকার অ-সামরিকীকৃত এলাকা পায়ে হেঁটে পার হবার পর দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট তাঁকে স্বাগত জানান।

উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে কয়েক মাস আগেও যুদ্ধাবস্থা বজায় ছিল। কিন্তু শুক্রবার দেখা গেল ভিন্নচিত্র। দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানেরা ঐতিহাসিক সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন। দুই দেশের সীমান্তবর্তী গ্রাম পানমুনজমের পিস হাউসে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইনের সঙ্গে বৈঠক করেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। এসময় দুই রাষ্ট্রপ্রধান নথি বিনিময় করছেন। বৈঠকের স্থানে দুই নেতাই খোলামেলা আলোচনা করার কথা বলেছেন।

১৯৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধের পর থেকে জারি থাকা যুদ্ধবিরতিকে একটি শান্তিচুক্তিতে রূপান্তরিত করার বিষয়েও একমত হন তাঁরা।

দুই কোরিয়ার এই সম্মেলন এবং জুন মাসে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে আলোচনাকে সামনে রেখে কিম জং আন পারমাণবিক পরীক্ষা এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের কার্যক্রম বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।

এদিকে, প্রতিক্রিয়ায় হোয়াইট হাউজ বলেছে, শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে দুই কোরিয়ার ঐতিহাসিক এই সম্মেলনে ইতিবাচক অগ্রগতি হবে বলে আশা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published.