ভারতে হচ্ছে না এশিয়া কাপ

পাকিস্তানের আপত্তি থাকায় ১৪তম এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টের স্বাগতিক দেশ পাল্টে গেল। এ বছর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ভারতে। সংযুক্ত আরব আমিরাতকে আয়োজনের ভার দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) আবেদন অনুমোদন করেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। বার্ষিক বৈঠকে সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত করেছেন সভাপতি নজম শেঠি। সেপ্টেম্বরের এই আসরে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ মোট ছয়টি দলের অংশ নেওয়ার কথা।

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে রাজনৈতিক দ্বন্দ্বই ভেন্যু পাল্টানোর কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। ক্রিকইনফোকে এসিসি সভাপতি নজম শেঠি বলেন, ‘এসিসি বিষয়টি সুচিন্তিতভাবে ভেবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এটাই সেরা পথ (ভেন্যু পাল্টানো)।’ ২০০৮ সালে মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে পাকিস্তানের সঙ্গে কোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেনি ভারত। তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো বৈশ্বিক কিংবা এশিয়া কাপের মতো মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এসিসির ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপে (অনূর্ধ্ব-২৩) ভারত দল না পাঠালে পাকিস্তানও এশিয়া কাপে না পাঠাবে না, পিসিবি এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে সংকট কাটাতেই এশিয়া কাপের ভেন্যু পাল্টানো হয়েছে।

এসিসির সদস্যভুক্ত পাঁচ দল ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান টুর্নামেন্টে অংশ নেবে। তবে মোট ছয়টি দল অংশ নেবে এ টুর্নামেন্টে। ষষ্ঠ দলটিকে প্লে-অফ খেলে চূড়ান্ত টুর্নামেন্টে উঠে আসতে হবে। ভেন্যু পাল্টানো হলেও এশিয়া কাপের সূচি পাল্টানো হয়নি। ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মাঠে গড়াবে এশিয়া কাপ।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *