শুভেচ্ছা দূত হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

জাতীয়

জাতিসংঘ শিশু তহবিল ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে চারদিনের সফরে সোমবার বাংলাদেশে আসেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সফর শেষে  বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি।

উখিয়ার বালুখালী, জামতলি এবং কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী শরণার্থীশিবির পরিদর্শন করে নাফ নদীর তীর এবং রোহিঙ্গারা যেসব পথ দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে—সেসব এলাকাও পরিদর্শন করেন প্রিয়াঙ্কা।

সৌজন্য সাক্ষাতের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অতিরিক্ত প্রেস সচিব এম নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে তাঁর অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন। তিনি জানান, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেছেন, একটি প্রজন্ম হারিয়ে যেতে বসেছে। রোহিঙ্গা শিশুরা যথাযথ শিক্ষা পাওয়ার অভাবে চরমপন্থার দিকে ঝুঁকে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মিয়ানমারের ১২ লক্ষাধিক রোহিঙ্গার মানবেতর জীবনযাপনে বাংলাদেশের মাটিতে প্রতিদিন গড়ে ৬০ রোহিঙ্গা শিশুর জন্মের মতো জটিল সংকট নিরসনে বিশ্ববাসীর জোরালো অবস্থান প্রয়োজন।

রোহিঙ্গারা বিপর্যয়ের মধ্যে আছে বলে মন্তব্য করেন ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত প্রিয়াঙ্কা। প্রিয়াঙ্কা বলেছেন, বাংলাদেশের কাছ থেকে বিশ্বের শেখার আছে যে কীভাবে দুস্থ মানবতার পাশে দাঁড়াতে হয়। সমস্যার সমাধান হলে রোহিঙ্গারা যেখান থেকে এসেছে, সেখানে ফেরত পাঠানোর কথাও বলেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.