তাজমহলসহ ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলো ইজারা দিচ্ছে ভারত

পৃথিবীর অন্যতম আশ্চার্য তাজমহলকে এবার ইজারা দিতে চাইছে ভারত সরকার। মুঘল সম্রাট শাহজাহানের অমর সৃষ্টি তাজমহল। দেশটির ঐতিহ্য সংরক্ষণ কর্মীদের অভিযোগ ঐতিহাসিক পর্যটন কেন্দ্র আগ্রার তাজমহলকে বেসরকারি খাতে ইজারা দেয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার।

সম্প্রতি ভারত সরকার ঐতিহাসিক স্থাপনা বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেয়ার একটি প্রকল্প চালু করেছে। তার আওতায় সম্রাট শাহজাহানের তৈরি তাজমহল দেখভাল করার জন্য কোনো বেসরকারি কোম্পানির হাতে ছেড়ে দেয়া হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিরোধী দলগুলোর পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, মোদি সরকার ঐতিহাসিক স্থাপনা ইজারা দেয়ার যে পরিকল্পনা নিয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে ৯৫টি পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে।

ভারতের পর্যটন মন্ত্রনালয় শনিবার ঘোষণা করেছেন, সতেরো শতকের নির্মিত দিল্লির লাল কেল্লা ২৫ কোটি রুপির বিনিময়ে ‘ডালমিয়া ভারত’ গ্রুপকে ইজারা দেয়া হয়েছে। পাঁচ বছরের জন্য এই চুক্তি করা হয়েছে। এই চুক্তিতে অন্ধ্রপ্রদেশের একটি দুর্গও রয়েছে।

ভারতে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত ৩১টি স্থাপনাসহ মোট ৩৭০০ ঐতিহাসিক স্থাপনা রয়েছে। এর মধ্যে দুটি স্বীকৃত ঐতিহাসিক স্থাপনা তাজমহল ও দ্বাদশ শতকের কুতুব মিনারও রয়েছে।

মুঘল সম্রাট শাহ জাহান ১৬৩৯ সালে লাল কেল্লা নির্মাণ করেন। ইউনেস্কো ঘোষিত ঐতিহ্যগত স্থাপনাটিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী স্বাধীনতা দিবসের বক্তব্য দিয়ে থাকেন। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চুক্তির আওতায় লাল কেল্লার উন্নয়ন, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের অধিকার দেওয়া হয়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সব প্রক্রিয়া অবশ্যই স্থাপনার উন্নয়নের জন্য করা হবে। এই প্রকল্প থেকে কোম্পানিগুলোর লাভ করার সুযোগ থাকবে না। ইজারার আওতায় এসব কোম্পানি শুধু ঐতিহাসিক স্থাপনার উন্নয়ন কাজ, পর্যটক টানা এবং ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করবে।

অারো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *