ভূমধ্যসাগরে ৫৪ বাংলাদেশিসহ উদ্ধার ১০৫

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে যাওয়ার পথে ৫৪ বাংলাদেশিসহ ১০৫ জনকে উদ্ধার করেছে স্পেনের সেচ্ছাসেবী সংস্থা প্রো-অ্যাক্টিভা ওপেন আর্মস। প্রো-অ্যাক্টিভা ওপেন আর্মস নামের ওই সংস্থাটি বলছে, উদ্ধারকৃত ব্যক্তিদের মধ্যে বাংলাদেশি ছাড়াও মিসর, লিবিয়া, নাইজেরিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিক আছে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, রবিবার একটি ঝুঁকিপূর্ণ রাবারের নৌকা থেকে সবাইকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া ব্যাক্তিদের মধ্যে অধিকাংশই বাংলাদেশের নাগরিক। বাকিরা মরোক্কো, মিশর, পাকিস্তান, ঘানা, লিবিয়া, সেনেগাল ও নাইজেরিয়ার নাগরিক।

সবাই লিবিয়া থেকে ইউরোপের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিলো। তবে উদ্ধার হওয়ার অভিবাসন-প্রত্যাশীরা বলেছেন, মানব পাচারকারীদের একটি দল তাঁদেরকে বিভিন্ন ট্রলার থেকে নামিয়ে এই ইঞ্জিনশূন্য নৌকায় সাগরের মাঝপথে ফেলে রেখে চলে যায়।

এর আগে ভূমধ্যসাগর থেকে গত শুক্র ও শনিবার ৪৭৬ জন অভিবাসন-প্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে স্পেনের কোস্টগার্ড। তারা ১৫টি ছোট নৌকায় ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রপথ পাড়ি দিয়ে আফ্রিকার উপকূল থেকে ইউরোপে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্রতিবছর হাজারো মানুষ ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে পাচারকারীদের নৌকায় করে স্পেনসহ ইউরোপের দেশগুলোয় পৌঁছানোর চেষ্টা করে। এসব নৌকা সমুদ্রে চলাচলের উপযোগী নয়। প্রতিবছর হাজারো মানুষ ডুবে মারা যায়।

জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে এ পর্যন্ত ৬১৫ জন মারা গেছে। এখন পর্যন্ত ২২ হাজার ৪৩৯ জন ইউরোপীয় উপকূলে পৌঁছেছে। এর মধ্যে ৪ হাজার ৪০৯ জন গিয়েছে স্পেনে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *