একা থাকা শিশুদের সঙ্গ দেওয়া ও প্রাথমিক শিক্ষার কাজে সাহায্য করবে রোবট

সম্প্রতি চীনে শিশুদের আদর্শ সঙ্গী হিসেবে ব্যবহারের জন্যে ‘আইপাল’ নামের একটি রোবট তৈরি করা হয়েছে। রোবটটি দুটি ভাষায় কথা বলতে পারে। গণিতের হিসাব-নিকাশের পাশাপাশি শিশুদের কৌতুকও শেখাতে পারবে আইপাল।

গোলাকার মুখ, পায়ে চাকা, পুরো শরীরের কিছু কিছু জায়গায় দেখা যায় গোলাপি বা নীল রঙের ছটা। এর বুকে থাকা ছোট্ট স্ক্রিনের মাধ্যমে শিশুদের সঙ্গে কথা বলতে পারে এটি।

মূলত, বাচ্চা সামলাতে তৈরি হয়েছে এই রোবট।

পাঁচ বছর বয়সের শিশুর সমান উচ্চতার আইপাল চাকার সাহায্যে চলাফেরা করতে পারে এবং নাচতেও পারে। এই রোবটের আছে মানুষের মুখাবয়ব চিহ্নিত করার ক্ষমতা।

একটি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে আইপালের বুকে লাগানো স্ক্রিনের মাধ্যমে বাড়ির বাইরে থেকেও শিশুকে দেখতেও পারবেন বাবা-মা। দূরে থেকেও শিশুর প্রতি লক্ষ রাখা যাবে এর মাধ্যমে।

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাভাটারমাইন্ড রোবট টেকনোলজির সহপ্রতিষ্ঠাতা তিংগু হুয়াং জানান, রোবটটি তৈরির প্রধান লক্ষ্য ছিল, শিশুদের জন্য সঙ্গী তৈরি করা। একটি শিশু যখন রোবটটিকে দেখবে, তখন একে বন্ধু মনে করবে।

শিশুদের যত্ন নেওয়ার বিষয়ে চীনের তরুণ বাবা-মা’রা প্রায়ই সমস্যায় পড়েন। সমস্যা সমাধান করে শিশুদের হাসিখুশি বেড়ে উঠার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েই আইপাল তৈরী করা হয়েছে।

সম্প্রতি সাংহাইয়ে অনুষ্ঠিত ‘কনজ্যুমার ইলেকট্রনিকস শো এশিয়া’তে আইপাল নামের রোবটটি প্রদর্শিত হয়েছে। এই রোবটটি কিনতে খরচ পড়বে প্রায় ১ হাজার ৪০০ ডলার (১ লাখ ১৮ হাজার টাকা)।

অারো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *