দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট পার্ক গিয়ুন হাই’য়ের ৩২ বছরের কারাদণ্ড

দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত সাবেক দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট পার্ক গিয়ুন হাই’কে নতুন করে আট বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে দেশটির আদালত। এর আগে ২৪ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল তাকে। এখন সব মিলিয়ে ৩২ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলেন তিনি।

বেশ কয়েকটি দুর্নীতির অভিযোগে ইতিমধ্যেই ২৪ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছেন পার্ক। তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের মধ্যে রয়েছে, ক্ষমতার অপব্যবহার, ঘুষগ্রহণ ও বলপ্রয়োগ।

শুক্রবার নতুন করে তার বিরুদ্ধে গোয়েন্দা তহবিলের তথ্য ও অর্থ হাতিয়ে নেওয়া এবং পার্লামেন্টারি নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার অভিযোগ আনা হয়েছে। বর্তমান শাস্তির পাশাপাশি নতুন করে তাঁকে ছয় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে ও নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য আরো দুই বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তবে পার্ক তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। শুক্রবার রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। এর আগে তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগকে পক্ষপাতমূলক বলে দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকারও করেন তিনি।

সিউলের কেন্দ্রীয় জেলা আদালত শুক্রবার এক রায়ে বলেছে, পার্ক গিয়ুন হাই তার সাবেক সহযোগীদের সঙ্গে মিলে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা থেকে ২ কোটি ৬৪ লাখ ডলারের বেশি পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছিল। পাশাপাশি ২০১৬ সালে পার্লামেন্টারি নির্বাচনে দেশটির ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেছিল।

উল্লেখ্য, দুর্নীতি কেলেঙ্কারির অভিযোগে পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে দক্ষিণ কোরিয়ার শীর্ষ আদালত গত বছরের ১০ মার্চ পার্ক গিউন হাইকে প্রেসিডেন্টে পদ থেকে বরখাস্ত করে। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে প্রথমবারের মতো অভিশংসনের মাধ্যমে কোনো প্রেসিডেন্টকে বরখাস্ত করা হয়।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *