মিয়ানমারের সেনাপ্রধান ও জেনারেলদের বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জাতিসংঘের

মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা সংঘটনের অভিযোগে দেশটির সেনাপ্রধান ও অপর পাঁচ শীর্ষ সেনা কমান্ডারকে বিচারের মুখোমুখি করতে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের তদন্তকারীরা। গতকাল সোমবার এই আহ্বান জানানো হয়।

বিদ্রোহী দমনের নামে গত বছরের আগস্টে রাখাইনে নৃশংস অভিযান শুরু করে মিয়ানমার। এই অভিযানের মুখে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। সেনা ও নজরদারিতে থাকা লোকজনের বিরুদ্ধে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠে।

মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধনযজ্ঞের অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছে। কর্তৃপক্ষের ভাষ্য মতে,তারা রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার জবাব দিচ্ছে মাত্র। তবে জাতিসংঘ মিশনের প্রতিবেদন ভিন্ন কথা বলেছ।

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা সংঘটনের জন্য আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের তদন্ত কর্মকর্তারা।

জাতিসংঘ-সমর্থিত ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশন বলেছে, উত্তর রাখাইন রাজ্যে গণহত্যার জন্য সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং লাইংসহ দেশটির শীর্ষস্থানীয় জেনারেলদের অবশ্যই তদন্তের আওতায় এনে বিচার করা উচিত। রাখাইন, কাচিন, শান রাজ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধের জন্য একই পদক্ষেপ চেয়েছে মিশন।

উল্লেক্ষ্য, জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল ২০১৭ সালের মার্চে এই মিশন গঠন করে। মিশনের প্রতিবেদনের শেষ দিকে বলা হয়েছে, তদন্তের যৌক্তিকতা ও শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের বিচারের মুখোমুখি করার জন্য যথেষ্ট তথ্য রয়েছে।

অারো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *