রবিবারের মধ্যে আয়কর রিটার্ন জমা না দিলে জরিমানা

৩০ নভেম্বর (শুক্রবার) দেশব্যাপী ‘আয়কর দিবস’ ছিল ব্যক্তি করদাতাদের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ দিন। ছুটির দিন হওয়া সত্ত্বেও ওইদিন রিটার্ন নেওয়া হয়েছে। তবে এনবিআরের এ সংক্রান্ত নিদের্শনা হলো, আয়কর দিবস ছুটির দিনে অনুষ্ঠিত হলে পরবর্তী অফিস খোলার দিন জরিমানা ছাড়া আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে।

সেই হিসেবে রবিবার স্বাভাবিক নিয়মে রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে। তবে রবিবারের মধ্যে রিটার্ন জমা দিতে ব্যর্থ হলে পরবর্তী সময়ের সুদ ও ক্ষেত্রবিশেষে জরিমানা গুনতে হবে।

উপযুক্ত কারণ দেখিয়ে এই সময়ের মধ্যে উপ-করকমিশনারের কাছে সময়ের আবেদন করা যায়। উপ-করকমিশনার প্রথম দফায় দুই মাস পর্যন্ত সময় বাড়াতে পারেন। তবে ওই সময়ের মধ্যেও রিটার্ন জমা দেওয়া না গেলে ফের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উপ-করকমিশনার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনুমতিক্রমে আরও দুই মাস সময় বাড়াতে পারেন। তবে এই সময়ের জন্য প্রযোজ্য আয়করের ওপর মাসে দুই শতাংশ হারে জরিমানা গুনতে হবে। আর কেউ যদি সময় বাড়ানোর আবেদনও না করেন, সে ক্ষেত্রে পূর্ববর্তী বছরের পরিশোধ হওয়া আয়করের ওপর ১০ শতাংশ কিংবা পাঁচ হাজার টাকা (এর মধ্যে যেটি বেশি) জরিমানা গুনতে হবে। সেইসঙ্গে প্রতিদিনের জন্য ৫০ টাকা করে বাড়তি জরিমানা দিতে হবে।

এনবিআরের হিসাবে দেশে বর্তমানে কর শনাক্তকরণ নম্বরধারী ৩৮ লাখ। এর মধ্যে গত বছর প্রায় ১৬ লাখ রিটার্ন দাখিল হয়েছে বলে জানা গেছে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *