সোনারগাঁ জাদুঘর ও গোপীনাথ সাহা সরদার বাড়ি

প্রায় ৬০০ বছরের পুরনো সোনারগাঁয়ের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক গোপীনাথ সাহা সরদার বাড়ি যা ঈসা খাঁর জমিদার বাড়ি বা ঐতিহাসিক বড় সরদার বাড়ি সোনারগাঁ জাদুঘর নামেই পরিচিত। বাড়িটির পশ্চিম পাশে শানবাঁধানো ঘাট আর সজ্জিত পাড়বেষ্টিত পুকুরের সৌন্দর্য নিমিষেই যে কারো মন কাড়ে। বাংলার প্রকৃতি ও পরিবেশে  গ্রামীণ জীবনধারা ও প্রাচীন ঐতিহ্যের নিপুণ রূপকেন্দ্রিক প্রায় ষোল হেক্টর […]

Continue Reading

একেবারে ভিন্ন এক রমজানের অপেক্ষায় বিশ্বের ১৮০ কোটি মুসলমান

আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই মুসলমানের পবিত্রতম রমজান মাস শুরু হচ্ছে, কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবার বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের যে ধরণের কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে রোজা পালন করতে হবে, তার নজীর ইতিহাসে বিরল। বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই মুসলিমরা এবার প্রথামত আত্মীয়-পরিজন-প্রতিবেশিদের নিয়ে সন্ধ্যায় ইফতারি করতে পারবেন না এবং রাতে দল বেঁধে মসজিদে গিয়ে তারাবির নামাজ পড়তে পারবেন […]

Continue Reading

একজন স্বশিক্ষিত কারুশিল্পী

সুপ্রিয় চাকমা(৪৫) দূর্গম পাহাড়ী এলাকার একজন স্বশিক্ষিত কারুশিল্পী। একটি গাছের গুঁরিকে মনের মাধুরী মিশিয়ে তার অপ্রতুল সরঞ্জাম দিয়ে অত্যন্ত সুন্দরভাবে পছন্দসই আকৃতি দিয়ে কারুকার্যমন্ডিত করে তোলেন। নিপূণ হাতে ময়ূর, হাতি, বানর, বক বা বিখ্যাত মানুষের মূর্তি বানান নিজের ইচ্ছায়, নিজেরই গরজে। কোন শিক্ষাগুরু নেই অথচ তার দৃষ্টিনন্দন কারুকার্য যে কাউকে মুগ্ধ করার জন্য যথেষ্ট । […]

Continue Reading

ব্রাজিলের জার্সির রং কেন হলুদ, তা জানেন?

ফুটবলে হলুদ জার্সি মানেই ব্রাজিল। কিন্তু ব্রাজিলের জার্সির রং কেন হলুদ, তা জানেন? এই হলুদের পথচলা মোটেও সহজ ছিল না। এই হলুদ জার্সির আগের গল্পটা প্রতিটি ব্রাজিলিয়ানের জন্য আক্ষেপের। ১৯৫০ সাল, মারাকানায় দুই লাখ মানুষ সাক্ষী হতে চেয়েছিলেন বিশ্বকাপ জয়ের। উরগুয়ের বিপক্ষে সেই ম্যাচে জয় নয়, ন্যূনতম ড্র পারত ব্রাজিলকে প্রথম বিশ্বকাপ এনে দিতে। কিন্তু […]

Continue Reading

নিলামে উঠতে যাচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম মুক্তা ‘দ্য স্লিপিং লায়ন’

ঘুমন্ত এক সিংহের প্রতিকৃতি ‘দ্য স্লিপিং লায়ন’ মিঠা পানিতে জন্ম নেওয়া বিশ্বের বৃহত্তম মুক্তা। মুক্তাটি ২.৭ ইঞ্চি লম্বা। মুক্তাটির ওজন ১২০ গ্রাম বা ৪ আউন্সের মতো। ‘দ্য স্লিপিং লায়ন’ ৩০০ বছরের ইতিহাসের সাক্ষী। অকশন হাউজ ভেনদুয়েহুইসের তথ্য অনুযায়ী, ১৭০০ সাল থেকে ১৭৬০ সালের মধ্যে কোনো এক সময়ে মুক্তাটি চীনে পাওয়া গিয়েছিল। কলোনি যুগের বণিক, জুয়েলার্স […]

Continue Reading

হারিয়ে যাচ্ছে বাঘ-ছাগল খেলা

গ্রামবাংলার আনাচে কানাচে প্রচলিত আছে নানারকম খেলাধুলা, যা আমাদের বাঙালি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে যুগ যুগ ধরে লালন করে আসছে। কিন্তু সঠিক পরিচর্যা ও পৃষ্টপোষকতার অভাবে এর অধিকাংশই ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। ইচিং বিচিং, কুতকুত, গোল্লাছুটের মতোই গ্রামবাংলার একটি জনপ্রিয় খেলার নাম বাঘ-ছাগল খেলা। গ্রামের শিশু-কিশোরদের মাঝে জনপ্রিয় এই খেলা সাধারণত ছেলে ও মেয়ে উভয়ই […]

Continue Reading

বউ গাছতলার বউমেলা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ’র জয়রামপুর গ্রামে ব্যতিক্রমী এক মেলা বসে, যার নাম বউমেলা। এখানে প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে দেড়শ বছরের পুরোনো একটি বটগাছকে ঘিরে বউমেলা অনুষ্ঠিত হয়। এটি স্থানীয়ভাবে “বটতলার মেলা” নামেও পরিচিত। শত বছরের পুরোনো এ মেলার আয়োজন করে থাকেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। জয়রামপুর গ্রামের মানুষের ধারণা, প্রায় ১০০ বছর ধরে চলছে এই মেলা । বটগাছটিকে দেবী মনে করে আমিনপুর, ভট্টপুর, […]

Continue Reading

বাংলা পঞ্জিকার আধুনিক ও বিজ্ঞানসম্মত রূপ দেন ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

বিভিন্ন ভাষায় ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ’র দখল ছিল অসাধারণ ও অসামান্য। উর্দু ভাষার অভিধান প্রকল্পে তিনি সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন। পরে পূর্ব পাকিস্তানি ভাষার আদর্শ অভিধান প্রকল্পের সম্পাদক হিসেবে বাংলা একাডেমিতে যোগ দেন। ১৯৬১ – ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত বাংলা একাডেমির ইসলামি বিশ্বকোষ প্রকল্পের অস্থায়ী সম্পাদক পদে নিযুক্ত হন তিনি। ১৯৬৩ সালে বাংলা একাডেমি কর্তৃক গঠিত বাংলা একাডেমির পঞ্জিকার তারিখ বিন্যাস কমিটির […]

Continue Reading

নতুন বাংলা সনের নিয়ম বিনির্মাণ করেন ফতেহউল্লাহ সিরাজি

‘নববর্ষ’ নতুন বছরের সূচনার নিমিত্তে পালিত একটি সর্বজনীন উৎসব। কিন্তু একসময় নববর্ষ বা পহেলা বৈশাখ ঋতুধর্মী উৎসব হিসেবে পালিত হত। তখন এর মূল তাৎপর্য ছিল কৃষিকাজ, কারণ প্রযুক্তির যুগ শুরুর আগে পর্যন্ত কৃষকরা ঋতুর উপরই নির্ভরশীল ছিল। সৌরপঞ্জিকা অনুসারে বাংলা বারো মাস অনেক আগে থেকেই পালিত হতো। সৌরপঞ্জিকা অনুযায়ী দিন গণনা শুরু হত গ্রেগরীয় পঞ্জিকায় এপ্রিল মাসের […]

Continue Reading

দিঘাপতিয়া রাজবাড়ি

দিঘাপতিয়া রাজবাড়ি:  আঠারো শতকে নির্মিত দিঘাপতিয়া মহারাজাদের বাসস্থান। দয়ারাম রায় (১৬৮০-১৭৬০) এ রাজবংশের  প্রতিষ্ঠিাতা। বর্তমানে এটি ব্যবহূত হয় উত্তরা গণভবন বা উত্তরাঞ্চলের গভর্নমেন্ট হাউস হিসেবে। নাটোর শহর থেকে প্রায় ২.৪ কিমি দূরে প্রাসাদটি অবস্থিত। নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক থেকে একটি সংযোগসড়কের মাধ্যমে প্রাসাদটিতে যাওয়া যায়। দয়ারাম রায় দিঘাপতিয়া প্রাসাদের মূল অংশ ও এর সংলগ্ন আরও কিছু ভবন […]

Continue Reading